বাংলাদেশ

প্রতিষ্ঠার পর থেকেই ফুলবাড়ীয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে মানুষের পাশে দাড়িয়েছে প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠন : সেলিমা বেগম সালমা

মোবারক হোসাইন : ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার আপামর জনসাধারণ ও প্রত্যন্ত এলাকার মানুষের পাশে দাড়িয়েছে প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠন। প্রবাসীরা নিজের সুখ বিসর্জন দিয়ে সর্বদা অসহায় মানুষদের পাশে দাড়িয়েছে। এছাড়াও প্রবাসীদের বিপদাপদে সব সময় পাশে থাকবে সংগঠনটি। কারণ, প্রবাসীরা হলো দেশের রেমিট্যান্স যোদ্ধা, আর এই প্রবাসীদের নিয়েই এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের মাধ্যমেই দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল থাকে। বর্তমানে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা। বিশ্বের বুকে বাংলাদেশকে আরো উচু মর্যাদা এবং সম্মানের জায়গায় নিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশীরা।

গত বৃহস্পতিবার (৬ জুলাই) ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলা ভিত্তিক প্রথম প্রবাসীদের সমন্বয়ে গঠিত প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের দেশে অবস্থানরত সদস্য মন্ডলীদের অংশগ্রহণে পবিত্র ঈদুল আযহা পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময়ে ঈদ পুনর্মিলনী ২০২৩ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংগঠনটির উপদেষ্টা ও আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থানীয় আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী সেলিমা বেগম সালমা এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ফুলবাড়ীয়ায় মানব সেবার ব্রত নিয়ে গত করোনা মহামারীর সময় প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিলো প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠন। যখন কেউ কারো আপন ছিলো না। কিন্তু প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠন উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় খুজে খুজে অসহায় হতদরিদ্রদের সাহায্য সহযোগীতা করে মানুষের পাশে দাড়িয়েছে।

সালমা বলেন, ফুলবাড়ীয়া উপজেলার আপামর জনসাধারণের মাঝে খুঁজে খুঁজে অসহায়দের পাশে স্বেচ্ছাসেবক এবং মানবিক সংগঠন হিসাবে প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠন আবির্ভূত হয়েছে। এই সংগঠনের কোন উদ্দেশ্য নেই। এটি অরাজনৈতিক দলনিরপেক্ষ সংগঠন। এখানে সব মতাবলম্বীরা রয়েছে।

অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী ও দেশটিতে বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভানেত্রী সেলিমা বেগম সালমা আরো বলেন, বাংলাদেশ থেকে সুদূর প্রবাসে যারা থাকেন তাদের মাতৃভূমির জন্য এবং এদেশের মানুষের জন্য মন কাঁদে। তাই শুধু নিজের পরিবারের কথা না চিন্তা করে প্রবাসীরা এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করে গ্রামে গঞ্জের অসহায় মানুষদের পাশে দাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, বিদেশে প্রবাসীদের আত্মীয় স্বজন কেউ নেই, নিজ ভূমি থেকে হাজার হাজার মাইল দূরে তাদের অবস্থান করতে হয়। প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের কার্যক্রমে যখন একটা লোকের বিন্দু মাত্রও উপকার হয় তখন প্রবাসীদের মনে প্রশান্তির সৃষ্টি হয়।

এসময় সেলিমা বেগম সালমা প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের ভবিষ্যত পরিকল্পনা উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া সহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে কথা বলার পাশাপাশি সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, উপদেষ্টা মন্ডলী ও কার্যকরী সদস্য সহ সকল শুভানুধ্যায়ীদের ধন্যবাদ জানান।

সকালে উপজেলা শহরের ছনকান্দা সড়কের পাশে পালকি কমিউনিটি সেন্টারে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের সভাপতি দৌলত উর রহমান তরফদার। এতে আলোচনা অনুষ্ঠান, মধ্যাহ্নভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবক সোহাগ রানার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন, উপজেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন উজ্জ্বল, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অছেক বিল্লাহ শামীম, সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য ও ফিলিপাইন বংশদ্ভূত জীন কেটামিন প্রেট্টিয়াকা, সমাজসেবক ও স্বেচ্ছাসেবক আব্দুল আলিম, ফুলবাড়ীয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম স্বপন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মনির হোসেন, মোঃ আবুল হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান তারা, উপদেষ্টা রফিকুল আলম, দিদারুল ইসলাম, ইমরুল কায়েস, শিক্ষা সম্পাদক মোনতাছির রহমান, স্বাস্থ্য সম্পাদক শাহজাহান সিরাজ সাজু, সমাজসেবা সম্পাদক মিনহাজ আলী আশরাফ, সহ উন্নয়ন সম্পাদক এ আর শিমুল, সদস্য আমির হামজা, রাকিব হোসাইন, রফিকুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম ও রাসেল মিয়া।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সাইফুল ইসলামের পিতা আবুল হোসেন এবং উপদেষ্টা ইমরুল কায়েসের পিতা আব্দুল হাকিম, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পারভীন সুলতানা এবং রাঙামাটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী মুক্তা সহ অন্যান্যরা।

অনুষ্ঠানের শেষে উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের একজন দূর্ঘটনায় আহত রোগীকে তার প্রতিনিধির নিকট নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।

এছাড়াও দুপুরে প্রবাসী পরিবার মানবিক সংগঠনের সদস্যদের আত্মীয় স্বজন, বিভিন্ন সামাজিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সম্মানে মধ্যাহ্নভোজ অনুষ্ঠিত হয়।

পরে আনন্দ উৎযাপনে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনে গান পরিবেশন করেন দেশবরেণ্য বাউল কণ্ঠশিল্পী হুমায়ূন সরকার। এতে আনন্দে মেতে উঠেন সংগঠনটির নেতৃবৃন্দরা।

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button