ফুলবাড়ীয়ার খবর

ফুলবাড়ীয়ার আনই গাঙের পাড় ভেঙে ভেসে গেছে প্রায় ৩ কোটি টাকার মাছ

নিজস্ব প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার রাঙামাটিয়া ইউনিয়নের আনুহাদী গ্রামে আনুহাদী মৎস্যজীবী সমবায় সমিতির অধিনে আনই গাঙের ২৯ একর জলাশয়ে ৬ বছর মেয়াদি সরকারি ইজারার মাধ্যমে যৌথভাবে মাছ চাষ করে আসছেন সমিতির ২৮ জন সদস্য। বর্তমানে ইজারার সময় ৪ বছর চলমান।

সম্প্রতি ভারী বর্ষনে গাঙের দু’দিকের পাড় ভেঙে বানার নদী ও বড়বিলার বড় খালের সাথে একাকার হয়ে ইজারা নেওয়া আনই গাঙের চাষকৃত মাছ ভেসে গেছে।

আনুহাদী মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি কর্তৃপক্ষ বলছে, আনই গাঙের পাড় ভেঙে যাওয়ায় তাদের প্রায় দুই থেকে তিন কোটি টাকার দুই বছর ধরে লালণকৃত বিক্রি উপযোগী মাছ ভেসে গেছে। এই মাছ গুলো আবাদ করতে বড় ধরনের বিনিয়োগ করেছিলেন সমিতির সদস্যরা। এতে চরম লোকসানে পড়েছেন তারা।

সমিতির সভাপতি সমর আলী বলেন, আমরা হতদরিদ্র মানুষ, মাছ ধরে জীবন যাপন করে থাকি। এই জলাশয় টা ৬ বছরের জন্য ইজারা নেওয়া হয়েছে। এখন ইজারার সময় ৪ বছর চলমান। গত ২ বছর আগে থেকে মাছ চাষ করে আসছি। এখন মাছগুলো বিক্রির উপযোগী। কিন্তু পানির স্রোতে সব মাছ ভেসে গেছে। এখন আমরা প্রচুর ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছিল। সদস্য নামজুল হাসান বলেন, এখানে ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকার মাছ দেওয়া হয়েছিলো। এছাড়াও এখন পর্যন্ত মাছের খাবার সহ প্রায় দেড় দুই কোটি টাকার মতো খরচ হয়েছে। আমাদের প্রত্যাশা ছিলো ৩ কোটি বা তার থেকে বেশি টাকার মতো বিক্রি হবে।

এমতাবস্থায় বিভিন্ন এনজিও থেকে টাকা উত্তোলন ও জমি বন্দক এবং ধার দেনা করে মাছ পালন করে সর্বস্ব হারাতে বসেছেন তারা। এছাড়াও সরকারি ইজারার টাকা ও ধার দেনা কিভাবে পরিশোধ করবেন এ নিয়ে শঙ্কিত সমিতির সদস্যরা।

সম্পর্কিত সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button